একই দেহে পুরুষ ও নারী চিহ্ন যুক্ত কিংবা সম্পূর্ন পুরুষও নয় আবার নারীও নয় এমন মানুষজনেদের কি নামে ডাকা হবে

0
2203

অষ্টতর শতনাম…
সঞ্জয়কুমার গায়েন

একই দেহে পুরুষ ও নারী চিহ্ন যুক্ত কিংবা সম্পূর্ন পুরুষও নয় আবার নারীও নয় অথবা শরীরে পুরুষ মননে নারী বা শরীরে নারী মননে পুরুষ এমন মানুষজনেদের কি নামে ডাকা হবে সেই নিয়ে নানাজনে নানা মত । কিন্তু আজও সার্বিক গ্রহণযোগ্য একটি নাম প্রচলিত হয় নি । হবেও না বোধহয় । কারণ কৃষ্ণের মতো অষ্টতর শতনাম নিয়ে যে এরা সমাজে বিরাজমান । যেমন –

১ ) হিজড়া – আরবী শব্দ হিজর থেকে হিজড়া শব্দ এসেছে । যার অর্থ গোষ্ঠীগতভাবে বসবাস করা । কেউ বলছে এটি উর্দু শব্দ । যার অর্থ নিজস্ব ট্রাইব থেকে বেরিয়ে আসা । আবার অন্য একটি সূত্র জানাচ্ছে সংস্কৃত হিচ শব্দ থেকে হিজড়া কথাটি এসেছে যার অর্থ আশ্রয় বা পরিচয়হীন ।

২ ) বৃহন্নলা – বৃহৎ + নরা = বৃহন্নরা ; কিন্তু সংস্কৃতে অনেক জায়গায় র-এর পরিবর্তে ল বসে । তাই বৃহন্নলা । এর অর্থ বৃহৎ মানে বড়

৩ ) আরাবনী – তামিলনাড়ু রাজ্যে এদের আরাবনী বলা হয় । মহাভারতের অর্জুন ও নাগকন্যা উলুপীর পুত্র ।

৪ ) কিন্নর – দিল্লিসহ উত্তরভারতে এরা কিন্নর নামে পরিচিত । স্ত্রীলিঙ্গে কিন্নরী ।

৫ ) জোগাপ্পা – মহারাষ্ট্র , কর্ণাটক ইত্যাদি রাজ্যে এদের নাম জোগাপ্পা ।

৬ ) খোজা – এদের হিজড়া নামের পরে সবথেকে বেশি পরিচিত নাম এটি ।

৭ ) কিম্পুরুষ – প্রাচীন সাহিত্যের কোথাও কোথাও এদের এই নামে ডাকা হয়েছে ।

৮ ) স্ত্রী- রূপিণী – কামশাস্ত্রে এই নাম দেওয়া হয়েছে ।

৯ ) পুরুষরূপিনী – কামশাস্ত্রে এদের এই নামেও ডাকা হয়েছে ।

১০ ) পঞ্চমী নায়িকা – বাৎসায়ন এদের এই সম্বোধনে ভূষিত করেছেন ।

১১ ) ছক্কা – হিন্দিতে এই নামটি বেশ প্রচলিত ।

১২ ) নপুংসক – ন স্ত্রী ন পুমান ইতি ( পুমান অর্থে পুরুষ ) । এই নামটিও মুখে মুখে ফেরে ।

১৩ ) বানজারা – রাজস্থানে এদের বানজারা নামে ডাকা হয় ।

১৪ ) কুলীমাদর – তামিলনাড়ুতে অবস্থাপন্ন হিজড়াদের কুলীমাদর বলে ডাকা হয় ।

১৫ ) ভিলাইমাদর – তামিলনাড়ুতে দরিদ্র হিজড়াদের ভিলাইমাদর নামে ডাকা হয় ।

১৬ ) তাওজী – হরিদ্বারে সবাই হিজড়াদের তাওজী বলে ।

১৭ ) খুসরে – পাঞ্জাবে এই নামে ডাকার প্রচলন আছে ।

১৮ ) মাংলীমুখী – মথুরা- বৃন্দাবনে এই নামেই এদের চেনে ।

১৯ ) মাসি – আমাদের বাংলায় এই নাম ধরেই এদের ডাকার চল ।

২০ ) ছিন্নমুস্ক – প্রাচীন সাহিত্যে এই নাম পাওয়া যায় ।

২১ ) ষন্ড (শন্ড ) – মনুসংহিতায় এই নাম ব্যবহৃত হয়েছে ।

২২ ) ক্লীব – এরা সন্তান উৎপাদনে অক্ষম বলে অনেকেই এই নামে ডেকেছে ।

২৩ ) ষাঁড়া – ষণ্ড এর উচ্চারণ সুবিধার্থে এই নাম ।

২৪ ) কঞ্চুকী – কুঞ্চন মানে সংকুচিত বা কোঁচকানো । ক্ষুদ্র যৌনাঙ্গ এদের এই নামকরণ করেছে ।

২৫ ) পুংস্তহীন – পুং বা পুরুষাঙ্গ হীন বলে এমন নামে ডাকা ।

২৬ ) স্ত্রীপূর্বপুরুষ – মহাভারতে মহামতি ভীষ্ম এদের এমন নামকরণ করেছিলেন ।

২৭) হিজরাণী – হিজড়া মহল্লার গুরু মায়েদের এই নামে ডাকা হয় ।
২৮ ) সি-মেল – অধুনা ইংরাজী স্টাইলে এমন নাম বলা হচ্ছে । তবে সাধারণত যারা হরমোন থেরাপি করে স্তনযুগল উন্নত করে নিচ্ছেন কিন্তু পুরুষাঙ্গ থাকছে তাদের সি-মেল বলা হয় । এদের একটা বড় অংশ যৌনবৃত্তি করে । তাই কেউ কেউ সি-মেল বললেই যৌনকর্মী বোঝে । তবে তা ঠিক নয় ।
২৯ ) লেডি-বয় – শরীরে নারী কিন্তু মননে পুরুষ তারা এই নামে পরিচিত ।
৩০ ) মেনাকা ( Menaka ) – কোচিন এলাকায় এই নামে এদের পরিচিতি ।
৩১ ) মেতি ( Meti ) – নেপালসহ আমাদের রাজ্যের পাহাড়ি এলাকায় এই নামে ডাকা হয় ।
৩২ ) জেনানা – মতপার্থক্য থাকলেও অনেকের মতে , যেসব পুরুষ নারী সেজে হিজড়াবৃত্তি করে তারা জেনানা ।
৩৩ ) উভযৌন – সংবাদপত্রে মাঝেমধ্যে এই নাম ব্যবহৃত হতে দেখা যায় ।
৩৪ ) ইউনাক – Eunuch হিজড়ার ইংরাজী প্রতিশব্দ । শিক্ষিত সমাজ এই নাম ব্যবহারে অভ্যস্ত ।
৩৫ ) হারমোফ্রোডাইট- Hermaphrodite . ডাক্তাররা এই শব্দ ব্যবহার করেন । বাংলার্থ উভলিঙ্গ । যৌনাঙ্গে সমস্যা থাকলে সেই পেশেন্টদের এই নামে চিহ্নিত করা হয় ।
৩৬ ) বর্ষবর – থানেশ্বররাজ শ্রীহর্ষ তাঁর রত্নাবলী নাটকে এই নাম দেন । বর্ষ শব্দের অর্থ রেতঃ নিঃসরণ ।
৩৭ ) পিসি – মেদিনীপুরের বেশকিছু এলাকায় এই নামে ডাকার চল আছে ।
৩৮ ) অফলান – বাল্মীকি তাঁর রচনায় এই শব্দ দিয়ে পুরুষত্বহীনতাকে বুঝিয়েছেন ।
৩৯ ) পুং রমনী – পুরুষ কিন্তু রমনে নারীর ভূমিকা নেয় বলে এই নাম ।
৪০ ) সন্ধিমানব – একই দেহে নারীপুরুষ চিহ্নের সন্ধি মানে মিলনে তৈরি মানব । তাই এই নাম ।
৪১ ) যৌনকবন্ধ – কবন্ধ মানে মাথা কাটা । সেই অনুসরনে এরা যৌনকবন্ধ ।
৪২ ) আলি – দক্ষিন ভারতে হিজড়া সমাজ আলিসমাজ নামে পরিচিত ।
৪৩ ) মায়া – উড়িষ্যায় এই নামে পরিচিত ।
৪৪ ) অজনক – এরা সন্তানের পিতা হতে অক্ষম বলে এই নামকরণ করেছে ।
৪৫ ) আকুয়া –এরা না-পুরুষ না-নারী । তবে নারীসত্তাই বেশি । শুধু লিঙ্গছেদন করে নি । তারাই আকুয়া ।
৪৬ ) কোতি – মেয়েদের মতো আচরণকারী কিন্তু শরীরে পুরুষ ।
৪৭ ) হাফলেডিস – দক্ষিন চব্বিশ পরগণার বেশকিছু এলাকায় এই নামে ডাকা হয় ।
৪৮ ) ছিবড়ি – হিজড়াদলে কিছু মহিলাও থাকে । তারাই ছিবড়ি ।
৪৯ ) ছিন্নি – লিঙ্গছেদন করে যারা তারাই হিজড়া সমাজে এই নামে পরিচিত হয় ।
৫০ ) নিষ্পৌরুষ – সঙ্গমে পুরুষের ভূমিকা পালনে অক্ষম বলে এমন নামে ডাকে অনেকে ।
৫১ ) পান্থি ( Panthi ) – বাংলাদেশে এই নামের চল আছে ।
৫২ ) গিরিয়া – দিল্লী এলাকায় অনেকে এই নামে ডাকে ।
৫৩ ) শ্রীধর – কোচিন এলাকায় এই নামে ডাকার চল আছে ।
৫৪ ) অসেক্য – সুশ্রুতসংহিতায় এই নাম দেওয়া । যিনি মুখমৈথুনে সুখ পান ।
৫৫ ) সৌগন্ধিকা – এই নামটিও সুশ্রুত দিয়েছেন । এর অর্থ লিঙ্গঘ্রাণে সুখীপুরুষ ।
৫৬ ) কুম্ভিকা – যারা পায়ুসংগমে নারীর মতো ভূমিকা নেয় সুশ্রুত তাদের এই নাম দিয়েছে ।
৫৭ ) শন্ধা – যাদের চরিত্র নারীর মতো তাদের সুশ্রুত এই নামে ডেকেছেন ।
৫৮ ) ইরশ্যকা – যৌনক্রিড়া দর্শন করে নিজ সুখভোগীদের সুশ্রুতসংহিতায় এই পরিচিতি ।
৫৯ ) মউগা – যারা যৌনকর্মী তাদের এই নামে ডাকে ।

৬০ ) লন্ডা – যারা মেয়ে সেজে চটুল নাচ নাচে ।
৬১ ) হোমো – এখনকার কলেজপড়ুয়ারা এই নামে ডাকছে ।
৬২ ) শিখন্ডী – মহাভারতে অম্বা পূনর্জন্মে নারী-পুরুষ মিশিয়ে জন্মেছিলেন । তখন তার নাম ছিল শিখন্ডী ।
পরবর্তীকালে অনেকেই এই ধরনের নারী-পুরুষ মেশানো মানুষদের এই নামে ডেকেছে ।
৬৩ ) শিখন্ডিনী – শিখন্ডীর লিঙ্গান্তর করে এরূপ নামকরণ করা হয়েছে ।
৬৪ ) পবয়া – হিজড়াদের দেবী বহুচেরা মাতার সেবায়েতরা এই নামে পরিচিত । এরাও এক ধরনের হিজড়া ।
৬৫ ) কমলিয়া – হিজড়াদের মধ্যে একটি বিশেষ সম্প্রদায় । এরা হিজড়াদের বিয়ে করে ।
৬৬ ) ধুরানি – হিজড়াদের মধ্যে যারা যৌনকর্মী তাদের এই নামে ডাকা হয় ।
৬৭ ) হিঞ্জড়া – উড়িষ্যায় এই নামের প্রচলন আছে ।
৬৮ ) কজ্জা – কন্নড় ভাষীরা এই নামে ডাকে ।
৬৯ ) অজনিকা – অজনকের লিঙ্গান্তর করে এই নাম দিয়েছে ।
৭০ ) আক্তা – হিজড়ার সমার্থক শব্দ হিসাবে এই নাম পাওয়া যায় ।
৭১ ) সুবিদ – হিজড়ার একটি প্রতিশব্দ ।
৭২ ) মুখান্নাতুন – ইসলাম ধর্মে এই নাম দেওয়া হয়েছে ।
৭৩ ) ইনুখ – হিব্রু ধর্মে এদের নাম ।
৭৪ ) সারিস – ইহুদি ধর্মে এই নামে ডাকা হয় ।
৭৫ ) লেডিস – কলকাতায় এই নামে ডাকে ।
৭৬ ) ছোকরা – বীরভুম , মুর্শিদাবাদ অঞ্চলে লোকনাট্য আলকাপে এই নাম দেওয়া হয়েছে ।
৭৭ ) ট্র্যানি – মর্ডান সোসাইটির মেয়েলি পুরুষরা এই নামে নিজেদের পরিচয় দিচ্ছে ।
৭৮ ) ইন্টারসেক্স – একই দেহে নারী ও পুরুষের চিহ্ন যুক্ত মানুষদের এই নাম বেশ পপুলার ।
৭৯ ) আরিয়াল টোন্না – আঞ্চলিক নাম । তবে মোটামুটি প্রচলন আছে ।
৮০ ) অ্যান্ড্রোগাইন – Androgyne ইন্টারনেট সার্চিং এ এই নাম পাওয়া যাচ্ছে । এর অর্থ যিনি নিজেকে নারী বা পুরুষ কোন জেন্ডারে ফেলতে চান না ।
৮১ ) বাইজেন্ডার – Bigender . যিনি নিজেকে আইডেন্টিফাই করেন নারী ও পুরুষ উভয়ই হিসাবে ।
৮২ ) ট্রান্সসেক্সুয়াল – এর বাংলার্থ রূপান্তরিত । সার্জারির দ্বারা লিঙ্গ পরিবর্তন করে নিয়েছেন যিনি ।
৮৩ ) ক্যুইয়ার – সেক্সুয়াল মাইনোরিটি । যৌনসংখ্যালঘু । এরা তো আদতে তাই ।
৮৪ ) ট্রান্সভেসটাইট – বিপরীত লিঙ্গের পোশাক পরিধান করে আনন্দ পান । এরাও একপ্রকার ট্রান্সজেন্ডার ।
৮৫ ) কমন জেন্ডার – ব্যকরণ সম্মত এদের এই নাম। অনেকেই ডাকে এই নামে ।
৮৬ ) মহল্লক – হিজড়ারা গোষ্ঠীবদ্ধভাবে মহল্লায় থাকে । সেই থেকে এদের একটি প্রতিশব্দ মহল্লক হয়েছে ।
৮৭ ) হাজি – হিজড়া মহল্লার যেসব গুরু মায়েরা হজ করে আসেন তাদের হাজি বলে ডাকার রেওয়াজ ।
৮৮ ) নাগিন – সুন্দরী হিজড়ারা এই নামে পরিচিত ।
৮৯ ) খুনসা – আরবীভাষায় এদের এই নাম এটি ।
৯০ ) জানিথ – ওমান রাষ্ট্রে এরা এই নামে পরিচিত ।
৯১ ) অলিহা – উত্তর আমেরিকার মোহেঙ্গ জনগোষ্ঠীর মধ্যে পুরুষে পুরুষে বিয়ে হয় । সেই বিয়েতে যারা স্ত্রী হয় তারা অলিহা । এরা আসলে মেয়েলি পুরুষ ।
৯২ ) কানচুকিন – শ্রীপান্থ এর রচনা থেকে জানা যায় এই নাম । এরা এক ধরনের খোজা ।
৯৩ ) বরিসাধর – এরাও প্রকৃতপক্ষে খোজা ।
৯৪ ) মহাত্তারা – এরাও খোজা ।
৯৫ ) দন্ডধর – খোজাদের মধ্যে এই নামটি বেশি শোনা যায় । অর্থশাস্ত্রে এর উল্লেখ আছে ।
৯৬ ) মঙ্গুমাসী – এরাও হিজড়া । হিজড়াদের মন্দিরে এরা পাণ্ডারূপে কাজ করে ।
৯৭ ) গাল্লি – বহুচেরাদেবীর পুজোর পুরোহিতরা পুরুষাঙ্গ ছেদন করে রূপান্তরিত হতেন । তাদের এই নাম ।
৯৮ ) ছাল্লাওয়ালি – যারা ট্রেনে বাসে দোকানে বাজারে চাঁদাতোলার ভঙ্গিমায় টাকা তোলে তারা এই নামে পরিচিত
৯৯ ) ডবলডেকার – এমন মেয়েলি পুরুষ যারা নারীসঙ্গমও করে আবার পায়ুসংগমে নারী সাজে ।
১০০ ) নির্বান – পুরুষাঙ্গ ছেদনকারীরা এই নামে পরিচিত ।
১০১ ) ক্রসড্রেসার – অধুনা এই নামটি প্রচলিত । যাদের ভিতর নারীসত্তা আছে তাদের অনেকে ক্রসড্রেস করে ।
১০২ ) অবমানব – স্যাটায়ারধর্মী এই নাম সম্প্রতি বহুল প্রচলিত ।
১০৩ ) ট্রান্সজেন্ডার – Transgender সারা পৃথিবীতে সবথেকে বেশি এই নাম ব্যবহৃত হচ্ছে । প্রায় সব দেশে গৃহীতও হয়েছে
১০৪ ) রূপান্তরকামী – নিজ লিঙ্গরূপের পরিবর্তনকামী । বাঙালি মেয়েলিপুরুষরা নিজেদের এই নামে পরিচয় দিচ্ছে ।
১০৫ ) অন্য – ইংরাজীতে Other . ভারত সরকার এদের এই পরিচিতি দিয়েছে ।
১০৬ ) তৃতীয় লিংগ – থার্ডজেন্ডার । বিভিন্ন দেশে সরকার এই নামে এদের ডাকছে ।
১০৭ ) অপুরুষ – সাহিত্যে কেউ কেউ এই নামে এদের ভূষিত করছেন ।
১০৮ ) পুরস্ত্রী – পুর মানে ভিতর বা অন্তরে যারা নিজেকে স্ত্রী মনে করে । এদের জন্য যথার্থ নাম ।

SHARE
Previous articleMeet the Transmodel
Next articleMeet the Transmodel
I am Sanjoy Gayen , Executive Editor of Dream News, Researcher of Transgender , writer of Short Stories and Filmy Scripts, like to take Photographs and going to ToTo anywhere any day. But at last I can say, pls Judge me by my work.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here