It is better to born with HIV than to be a transgender – Madhuja Nandi, Transgender Activist

0
1204

It is better to born with HIV than to be a transgender – Madhuja Nandi, Transgender Activist

মধুজা নন্দী । সমাজসেবিকা । সুদীর্ঘ আঠারো বছর ধরে রাজ্য জুড়ে কাজ। সবার প্রিয় — মধুদি ‘ হিসাবে স্বীকৃতি । সব মিলিয়ে বিশাল অভিজ্ঞতা । ঝাঁপি খুলে কিছু শোনালেন ।

আপনাকে প্রথমেই অভিনন্দন ।
মধুজা – থ্যাঙ্ক ইউ । কিন্তু কেন ?
বা রে , ১৮ বছর ধরে ট্রান্সজেন্ডারদের জন্য কাজ করছেন । চাট্টিখানি কথা ।
মধুজা – দেখুন আমি কোন ট্রান্সজেন্ডার অ্যাক্টিভিস্ট নই । জাস্ট ওয়ার্কার । তবে এটা সত্যি , এতদিন কাজ করার সুবাদে সবাই চেনে । ভালোওবাসে । সেজন্য বারাসাত , হাবরা , দেগঙ্গা , বনগা , বসিরহাট মানে পুরো জেলা জুড়ে লিপি , পাখি , মুক্তি-দের সবাইকে যখন বলেছি ফুলপাতা কে ভোট দেওয়ার জন্য সকলেই তাই দিয়েছে । এই জেলায় ৭৫০ জন টিএমসিকে ভোট দিয়েছে । সবার আশা এই সরকার আমাদের জন্য ভাল কিছু করবে ।
আপনার কি সত্যি মনে হয় এই সরকার ট্রান্সজেন্ডারদের জন্য ভাল কিছু করবে ?
মধুজা – হ্যাঁ । ট্রান্সজেন্ডার ডেপলপমেন্ট বোর্ড তো এই সরকারই করেছে । তবে শুধু এতে হবে না । BLCPC ( ব্লক লেভেল চাইল্ড প্রোটেকশান কমিটি ) VLCPC ( ভিলেজ লেভেল চাইল্ড প্রোটেকশান কমিটি ) তে ট্রান্সজেন্ডার প্রতিনিধি নিতে হবে । তারা ট্রান্সজেন্ডার চাইল্ডদের বাঁচাবে
ট্রান্সজেন্ডারদের ডেভলপ করার জন্য আর কি করা উচিত বলে আপনার মনে হয় ?
মধুজা – মূল প্রয়োজন জীবিকার ব্যবস্থা করা । তার জন্য যেমন সিভিক পুলিশ নেবে বলেছে ভাল । এছাড়া যদি কোন ব্যবসায়িক লোন স্কিম করে তা ভাল হবে । মোট কথা যাই করুক এদের জন্য পার্মানেন্ট কিছু কাজের ব্যবস্থা করতে হবে । বেশিরভাগ ট্রান্সজেন্ডার তো এনজিও তে কাজ করে । কিন্তু এ কাজের কোন ঠিক ঠিকানা নেই । আজ আছে কাল নেই । তাই এদের জীবিকার ব্যবস্থা করতেই হবে । কাজ না পেয়েই তো অনেকে হিজড়া হয়ে যাচ্ছে। সেটা বন্ধ করতে কাজ চায়।

আপনি তো এই বিষয়ে দীর্ঘদিন কাজ করছেন । তা সেখানে কি ধরনের সমস্যার মুখোমুখি হয়েছেন বা হন ?
মধুজা – সমস্যা একটাই । সমাজের বেশিরভাগ তো ট্রান্সজেন্ডারদের মানসিকতা বোঝে না । তাই এদের বাঁচাতে গিয়ে প্রচুর মার খেয়েছি । আপনি শুনলে অবাক হবেন একজন স্কুল টিচার তার ট্রান্স- সন্তান দেবপ্রিয়াকে জোর করে ছেলে সাজাতে গিয়েছিলেন । ফলে কি হল জানেন ? সে একদিন তুঁতে খেয়ে মরে গেল । তারপর পল্লবী , ওকে ছেলে করতে ওর বাবা মা কী সব ডাক্তার দেখাল , ডাক্তার এসে এমন ইনজেকশান দিল যে ও মরেই গেল । তবে সবাই ওরকম না । যেমন মধ্যমগ্রামের মধুবন্তী । ওর বাবা মা আমার কথা শুনে ওর সার্জারি করান । আজ ও পুরোপুরি মেয়ে হয়ে কী সুন্দর গানবাজনা নিয়ে আছে ।


বুঝলাম । যাইহোক ট্রান্সজেন্ডারদের ওবিসি স্ট্যাটাস নিয়ে কি বলবেন ?
মধুজা – দেখুন আমরা ওবিসি হিসাবে সংরক্ষণ চাই না । যদি সরকার সত্যি সংরক্ষন দিতে চায় তাহলে সরাসরি ট্রান্সদের জন্য সংরক্ষণ করুক । কোটার ভিতর কোটা চাই না ।
ভাল বলেছেন । এভাবে কিন্তু কেউ ভেবে দেখে নি । থ্যাঙ্ক ইউ । এবার শেষপ্রশ্ন , ট্রান্সজেন্ডারদের সামাজিক অবস্থান কোন জায়গায় দাঁড়িয়ে বলে আপনার মনে হয় ?
মধুজা – খুব খারাপ । একটা সময় তাই তো বলতাম It is better to born with HIV than to be a transgender . জানি না আদৌ ট্রান্সজেন্ডারদের হিউম্যানজেন্ডার ভেবে এ সমাজ কোনদিনও কাছে টেনে নেবে কিনা । তবে আমি ট্রান্সজেন্ডার বাচ্চার খবর পেলেই ছুটে যাব তাকে বাঁচাতে । আপনাকেও বলছি কোথাও কোন ট্রান্স চাইল্ড টরচারের খবর পেলেই আমাকে ফোন করবেন ।
এভাবেই অনেক কথা হয়েছিল । আবার কথা হবে , সেই আশা নিয়ে সেদিন বাড়ি ফেরা ।
বারাসাত , ২৯ মে , রবিবার , ২০১৬

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here