বুকের পাটা আছে , তাই বুক উঁচু করে সমাজে ঘুরে বেড়াতে পারি- সুহানি

0
2645
বুকের পাটা আছে , তাই বুক উঁচু করে সমাজে ঘুরে বেড়াতে পারি- সুহানি

বুকের পাটা আছে , তাই বুক উঁচু করে সমাজে ঘুরে বেড়াতে পারি- সুহানি

বুকের পাটা আছে , তাই বুক উঁচু করে সমাজে ঘুরে বেড়াতে পারি- সুহানি

কুসুম , কুসুম , শুধুই শরীর , তোমার কি মন নাই কুসুম ? পুতুলনাচের ইতিকথায় মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের এ প্রশ্ন যেন সমগ্র মানবজাতির প্রশ্ন । অ্যানাটমি মানুষের শরীরে কোথাও মন নামক অরগ্যান খুঁজে না পেলেও মানুষ মাত্রেই জানে মনই শেষ কথা । তবে এটাও ঠিক , মন বলে আমি মনের কথা জানি না । আসলে মন এমন এক জটিল খেলা খেলে মনের ভিতর যে অনেক সময় বোঝা মুশকিল হয়ে যায় মন কি চায় । আমাদের মতো ট্রান্সজেন্ডারদের ক্ষেত্রে মনের এই জটিলতা বড্ড বেশি । আমরা যে মনে নারী আর শরীরে পুরুষ – কিন্তু মন ঠিক বলছে কিনা এই নিয়ে বয়ঃসন্ধি থেকে বেশ সমস্যা তৈরি হয় । আর এ এমন এক সমস্যা বাইরে থেকে কেউ বুঝতে পারে না । যাইহোক অনেক দ্বিধা কাটিয়ে যখন বুঝলাম আমি সত্যি মনে নারী তখন থেকেই পুরোপুরি নারী হওয়ার জন্য ছটফট করেছি । কিন্তু পরিবার , সমাজ এরকম নানা বাধা হতে দেয় নি । অবশেষে একপ্রকার জোর করেই মনের কথায় মনথেরাপি শুরু করলাম । সাইকোলজিক্যাল কনসাল্ট সেরে নিয়েই শুরু করলাম হরমোন ট্যাবলেট নেওয়া । জানি এর জন্য ভবিষ্যতে বড় দাম দিতে হতে পারে । শারীরিক সমস্যা হতে পারে । হার্টের প্রোবলেম , হাড়ের ক্ষয় আরও অনেককিছু হতে পারে । হোক । যে কদিন বাঁচবো মনের মতো বাঁচবো । চাই না আর ভুল শরীর নিয়ে বাঁচতে । হরমোন নেওয়ার শুরু করতেই শরীরে এক আশ্চর্য ব্যথা । এ যেন জন্মযন্ত্রনার ব্যথা । মাথা ঘোরা , গা-বমি তার বাহ্যিক বহিপ্রকাশ মাত্র । যাইহোক সব সামলে আজ নারী হয়ে উঠছি আমি । নিজেকে এখন আয়নার সামনে দাঁড় করালেই নিজের কাছে অচেনা লাগে । প্রতিটা দিনই নিজেকে নতুন করে আবিষ্কার করি । আর তখনই এক ভাল লাগা ছুঁয়ে যায় মনকে । সেটুকুর জন্যই তো এই মনথেরাফি । আজ যারা জিজ্ঞেস করে কেন এমন করলে , তাদের শুধু বলি আমার বুকের পাটা আছে , তাই বুক উঁচু করে সমাজে ঘুরে বেড়াতে পারি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here