পদ্মাবতীর ‘ঘুমার’ গানে নাচতে গিয়ে মার খেলেন রূপান্তরকামী নারী নৃত্যশিল্পী মেঘনা রায়চৌধুরী

0
1019

পদ্মাবতীর ‘ঘুমার’ গানে নাচতে গিয়ে মার খেলেন রূপান্তরকামী নারী নৃত্যশিল্পী মেঘনা রায়চৌধুরী

বিশেষ সংবাদদাতা,কলকাতা, ২৭/১১/২০১৭ : সঞ্জয়লীলা বনশালী পরিচালিত পদ্মাবতী সিনেমাকে ঘিরে দেশ জুড়ে বিতর্ক চলছে। আর সেই বিতর্কের ঢেউ এবার আছড়ে পড়ল বিয়েবাড়ির নাচগানের আসরে। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারের বিবাহ অনুষ্ঠানে।

অনুষ্ঠানে বিনোদনের অংশ হিসাবে নাচগানের আয়োজন করা হয়। সেই নৃত্যানুষ্ঠানে একজন পেশাদার শিল্পী হিসাবে যোগ দেন কলকাতার রূপান্তরকামী নারী নৃত্যশিল্পী মেঘনা রায়চৌধুরী।  সেখানে দু তিনটি গানে নাচ করার পরেই দর্শকাসন থেকে অনুরোধ আসে ‘ঘুমার’ গানে নাচার জন্য। অনুরোধ মতো সেই গানে নাচ শুরু করতেই একদল বহিরাগত উন্মত্ত যুবক এসে নাচ গান বন্ধ করার হুমকি দেয়। এবং ভাঙচুর শুরু করে। কয়েকজন মঞ্চের দিকে চেয়ারও ছুঁড়ে দেয়। ইঁট পাটকেলও ছুঁড়তে থাকে। সেই ইঁটের টুকরোর একটি এসে লাগে মেঘনার কপালে। কেটে যায় মেঘনার কপাল।

এ হেন আকষ্মিক তান্ডবে উপস্থিত প্রায় সকলেই হতবাক। যাইহোক উপস্থিত মানুষজনের হস্তক্ষেপে তান্ডব বন্ধ হয়। যদিও নাচগান আর হয় নি।

 

‘ আমি তো কোন ছবির প্রমোট করতে নাচতে আসি নি। নিছক আনন্দ দিতেই নাচ করছিলাম। বিতর্ক যাই থাক সেখানে আমার মতো শিল্পীকে আক্রমণ করা কেন?’

 

এ প্রসঙ্গে মেঘনাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘ আমি তো কোন ছবির প্রমোট করতে নাচতে আসি নি। নিছক আনন্দ দিতেই নাচ করছিলাম। বিতর্ক যাই থাক সেখানে আমার মতো শিল্পীকে আক্রমণ করা কেন?’ সোস্যাল মিডিয়ায় লাইভে এসেও সেই একই প্রশ্ন রাখেন মেঘনা। রূপান্তরকামী শিল্পীদের নিয়ে গড়া বিভিন্ন গ্রুপেও সেই প্রশ্ন রাখেন। তবে আশ্চর্যজনকভাবে ইতিবাচক সাড়া মেলে নি বলে জানান মেঘনা। এবং এ ব্যাপারে তাঁর অভিমত, অধিকাংশই তো বিতর্ককে এড়িয়ে চলেন। তাই হয়তো রেসপন্স করে নি।

যাইহোক, ছবিকে ঘিরে বিতর্ক একদিন থেমে যাবে। কিন্তু এভাবে বিতর্কের অজুহাতে শিল্পীদের নিগ্রহ করা থামবে কবে!

 

 

 

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here