এলজিবিটি ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে বড় প্রাপ্তি কমিউনিটিকে জানার সুযোগ পাওয়া- সৌরভ বোস, কর্ণধার, বসুশ্রী

0
573
সৌরভ বসু নিজস্ব অফিসঘরে

এলজিবিটি ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে বড় প্রাপ্তি কমিউনিটিকে জানার সুযোগ পাওয়া- সৌরভ বোস, কর্ণধার, বসুশ্রী

সৌরভ বসু নিজস্ব অফিসঘরে

ড্রিমনিউজ– আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

সৌরভ বোস– থ্যাংক ইউ। বাট এত ধন্যবাদ কেন?

ড্রিমনিউজ- বা রে, আপনাদের বসুশ্রীই কলকাতার বুকে প্রথম মূলস্রোতের প্রেক্ষাগৃহ যেখানে নিষিদ্ধ যৌনতা বিষয়ক চলচ্চিত্র উৎসব প্রদর্শিত হল। আর আপনাকে ধন্যবাদ দেব না?

সৌরভ বোস– সত্যি এটা অত্যন্ত আক্ষেপের বিষয়। যৌনতা যেখানে মানুষের প্রাকৃতিক তথা মৌলিক অধিকার সেখানে  রাষ্ট্রশক্তি কেন তা নিষিদ্ধ করে বুঝতে পারি না!

ড্রিমনিউজ– আপনি কি সো কলড্‌ এলজিবিটিকিউ ক্যাটাগরির মানুষদের যৌনতার অধিকার সমর্থন করেন?

সৌরভ বোস- অবশ্যই। আমি সকলের সমানাধিকারে বিশ্বাসী। এবং আমার মতে, এভরিওয়ান ইজ সেম।

উৎসব চলাকালীন বসুশ্রীর বহিরঙ্গ সজ্জা ছবি- নীলাঞ্জন মজুমদার

ড্রিমনিউজ– তার মানে আপনি মন থেকেই চান এদের অধিকার প্রতিষ্ঠা পাক। আর চাওয়া থেকেই এদের অধিকার প্রতিষ্ঠার দাবি নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্র উৎসব প্রদর্শনের অনুমতি তাই না ?

সৌরভ বোস-তা বলতে পারেন।  আসলে কি বলুন তো  আমাদের বসুশ্রী প্রেক্ষাগৃহ শুধুমাত্র ব্যবসায়িক দিক দেখেই চলচ্চিত্র দেখায় না, সাংস্কৃতিক দিককেও গুরুত্ব দেয়। যেমন ভারতের মধ্যে আমরা একমাত্র নিয়মিতভাবে একটি নির্দিষ্ট সময় অন্তর ফরাসী ছবি দেখায়।

ড্রিমনিউজ- রিয়েলি! দারুন ব্যাপার। যাইহোক বসুশ্রীর প্রতিষ্ঠা সম্পর্কে কিছু বলুন।

সৌরভ বোস- বসুশ্রী প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল ১৯৪৭ সালে ১৯ ডিসেম্বর। আমাদের যৌথ পরিবারের মধ্য থেকে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। প্রতিষ্ঠাতা সত্যসাধন বোস। আমার দাদু ( ঠাকুরদা)। দাদু মারা যাওয়ার পর এর দায়িত্বভার নেন কাকা মন্টু বসু। তারপর আমি। মানে এখন আমরা তৃতীয় প্রজন্ম এই বসুশ্রীর শ্রী ধরে রাখার চেষ্টা করছি।

ড্রিমনিউজ- শ্রী মানে সৌন্দর্যায়নের কথা যখন উঠল তখন না বলে পারছি না বসুশ্রীর অন্দরসজ্জা সত্যি অপূর্ব।

সৌরভ বোস- ধন্যবাদ। প্রবেশপথে যে যন্ত্রটা আলোর মালায় সজ্জিত দেখলেন তার ইতিহাস জানলে চমকে উঠবেন।

ড্রিমনিউজ– তাই! বলুন প্লিজ।

সৌরভ বোস- ওই মেশিনেই প্রথম প্রিমিয়ার শো দেখানো হয়েছিল কিংবদন্তী তথা বাঙালীর আইকন সত্যজিত রায়ের ‘ পথের পাঁচালী’-র। এছাড়া সোনারকেল্লা সহ আরও কিছু ছবিও দেখানো হয়।

ড্রিমনিউজ- ওয়াহ! গ্রেট!

  এই সেই মেশিন যা পথের পাঁচালির দেখিয়েছিল

সৌরভ বোস- আমাদের এই বসুশ্রীতে চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর পাশাপাশি নানা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও আয়োজিত হত। আর সেখানে বাংলার প্রায় সকল কিংবদন্তী শিল্পী এসেছেন।

ড্রিমনিউজ- আজকের প্রজন্ম বসুশ্রীর এই শ্রী-কথা জেনে মুগ্ধ হবেন। যাইহোক আবার এলজিবিটি ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ‘ডায়লগস’-এর প্রসঙ্গে আসি।

সৌরভ বোস– হ্যাঁ বলুন আর কি জানতে চান।

ড্রিমনিউজ- আয়োজকদের কেমন মনে হল?

সৌরভ বোস- খুব ভালো। প্রত্যয় জেন্ডার ট্রাস্ট, স্যাফো ফর ইক্যুয়ালিটি এবং দ্য গেটে ইনস্টিটিউট ম্যাক্সমুলার ভবন সম্মিলিতভাবে এর আয়োজক। এদের প্রত্যেকেই যেমন ভালো মনের মানুষ, তেমনই খুব গুনী মানুষ।

ড্রিমনিউজ- আর চারদিন ধরে চলা এই ফেস্টিভ্যালে আসা অগনিত দর্শক সম্পর্কে কি বলবেন?

সৌরভ বোস-শুরুতে একটু চিন্তা ছিল এই ভিন্নধারার ছবি দেখতে সাধারণ দর্শক খুব বেশি কি আসবে! ভেবেছিলাম শুধু কমিউনিটির মানুষজনই বোধহয় আসবেন। কমিউনিটির অসংখ্য মানুষ তো এসেছেন। তার পাশাপাশি প্রচুর সাধারণ দর্শক ছবি দেখতে এসেছেন যা আমাদের প্রত্যাশার থেকে অনেক বেশি।

ড্রিমনিউজ– বাঃ!

সৌরভ বোস– আর এই অগনিত দর্শক সমাগমে যাতে উৎসবে কোন বিঘ্ন না ঘটে তার জন্য বিশেষ ধন্যবাদ প্রাপ্য কলকাতা পুলিশের। তাঁরা আমাদের অনুরোধে যেভাবে নিরাপত্তা দিক দেখেছেন তার জন্য সত্যি আমরা তাদের কাছে কৃতজ্ঞ।

বসুশ্রীর অন্দরমহলের সজ্জা ছবি – বুবুন চক্রবর্ত্তী

ড্রিমনিউজ- সব মিলিয়ে এই উৎসব থেকে আপনার প্রাপ্তির ভান্ডার পূর্ণ বলছেন তাহলে?

সৌরভ বোস– নিশ্চয়। তবে সব থেকে বড় প্রাপ্তি এই কমিউনিটিকে কাছ থেকে জানার সুযোগ পাওয়াটা। সত্যি, কাছে না গেলে, আন্তরিকভাবে না মিশলে জানতেই পারতাম না এদের এই ভালো ও কৃতি দিকগুলো।

ড্রিমনিউজ- খুব ভালো কথা বলেছেন। জানার জন্য সত্যি কাছে যাওয়াটা দরকার। যাইহোক এবার শেষ করব একটা কথা বলে, আপনি তো সবাইকে ভালো বললেন তার কারণ আপনি নিজে এত ভালো। আর এর জন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

সৌরভ বোস– এদের ভালোর দিক আলোর দিক যেভাবে নিয়মিত তুলে ধরছেন তার জন্য আপনাদেরও ধন্যবাদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here