এমন দেশে থাকি যেখানে ছেলেরা ঠোঁটে লিপস্টিক পরতে পারবে না – পৌলমী দাস, সাহিত্যিক

0
666
গ্রাফিক এন্ড ক্লিক - Abakaashe Sanjoy

এমন দেশে থাকি যেখানে ছেলেরা ঠোঁটে লিপস্টিক পরতে পারবে না – পৌলমী দাস, সাহিত্যিক

গ্রাফিক এন্ড ক্লিক – Abakaashe Sanjoy

‘বঞ্চিতরা সঞ্চিত মাল ছিনিয়ে নিতে জানে’ ভারতবর্ষ..!! লিখেছেন পৌলমী দাস

হ্যাঁ এখানেই আমরা থাকি যেখানে একটা ছেলের মেয়েলি গলা হতে পারে না, একটা মেয়ে পুরুষালি ভাব রাখতে পারে না, ছেলেরা ঠোঁটে লিপস্টিক পরতে পারবে না, সালোয়ার পছন্দ হলেও প্যান্ট শার্ট ছেড়ে কোনদিন সালোয়ার পরতে পারবে না। এই ছেলে আর মেয়ের মাপকাঠি বেঁধে দিয়েছি আমরা। আমার কিছু বন্ধু, বান্ধবী ই তাদের বন্ধু বান্ধবী দের জিগেস করে, ‘ তুই হোমো না ট্রান্স? ‘ ‘ এই তুই তো মেয়ে মেয়ে হয়েছিস, লেডিস কোথাকার!!’ কি অদ্ভুত না!! এই দুটো প্রশ্ন কোনদিনই পছন্দ নয় আমার। আমার পছন্দ নয় কারও সত্ত্বা কেউ ধার্য করুক। কারও মেয়েলি শরীর পছন্দ। বা কারও পুরুষালি। কেউ হয়ত মাসিকের যন্ত্রণা সহ্য করতে চায় না, নিজের উঁচু বুক পছন্দ না, আবার হয়ত কোন ছেলে চায় তার উঁচু বুক থাকুক, বা মাসের পাঁচটা দিন মাসিকের যন্ত্রণা তার হোক। আমরা ওদের খাওয়াই না পড়াই না। আর ওরাও আমাদের কাছে জানতে আসে না, তথাকথিত ভাবে আমরা ছেলে না মেয়ে? তবে আমরা কেন ওদের নিজস্বতা কে দাম দিতে পারি না? বাঁচুক না ওরা নিজেই নিজের শর্তে। ওরা সংগ্রাম করছে, এখনও করছে। বর্তমানে খুব বরাত জোড়ে তৃতীয় লিঙ্গ নামে মানুষের আরও একটি লিঙ্গ ভিত্তিক শ্রেণীবিভাগ থাকলেও প্রায় সকল অধিকার থেকেই ওরা বঞ্চিত। লিঙ্গভিত্তিতে নারী পুরুষের যৌন মেলামেশা অধিকার থাকলেও অধিকার পায় নি ওরা। এই যা কিছু ওদের তা না পাওয়ার যন্ত্রণার আগুন টুকু থাকুক। সব শেষে ওরাও তো মানুষ। যার সত্ত্বা কে খাতায় কলমে মর্যাদা দেওয়া হলেও সর্বসমক্ষে সেই জমিয়ে রাখতে হয়। বঞ্চিত ওরা। সঞ্চিত সব অধিকার একদিন ঠিক ছিনিয়ে নেবে।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here