অবশেষে রূপান্তরকামী অত্রি ভালোবাসার বারান্দায় দাঁড়িয়ে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে চলেছেন

0
3195
ছবি- অত্রি কর ও সুমিত ভট্টাচার্য্য

অবশেষে রূপান্তরকামী অত্রি ভালোবাসার বারান্দায় দাঁড়িয়ে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে চলেছেন 

ছবি- অত্রি কর ও সুমিত ভট্টাচার্য্য

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ রূপান্তরকামী অত্রি কর। তৃতীয়লিঙ্গ হিসাবে  রাজ্যের প্রথম ডব্লিউবিসিএস পরীক্ষার্থী অত্রি কর।  দেশের প্রথম থার্ডজেন্ডার হিসেবে আইএএস পরীক্ষার্থী অত্রি কর। ট্রান্সজেন্ডার অ্যাক্টিভিস্ট অত্রি কর। বাচিক শিল্পী অত্রি কর। এরকম আরও কয়েকটি বিশেষণে বিশেষিত অত্রি কর অবশেষে এসে দাঁড়িয়েছেন ভালোবাসার বারান্দায়। যেখানে দাঁড়িয়ে তিনি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে চলেছেন।  তবে এই বারান্দায় দাঁড়ানোর জন্য তাঁকে অনেক পথ পাড়ি দিতে হয়েছে। কত ঝড়, কত ঝাপটা, কত ঝঞ্ঝা পের হতে হয়েছে তার হিসেব নেই। সেই রূপকথার গল্পের মতো বললে বলতে হয়, সাত সমুদ্র তেরো নদী পের হয়ে সবশেষে পৌঁছেছেন সেই কাঙ্খিত জনের কাছে। বলা ভালো ফিরে এসেছেন। কিভাবে ফেরা হল, কেনই বা যেতে হল সাত সমুদ্র তেরো নদীর পার, সেসব কথা এখন আর নয়। এখন কেবল ভালোবাসার বারান্দায় দাঁড়িয়ে অপেক্ষা। সেই শুভক্ষণের। যে ক্ষণের জন্য সকল  রূপান্তরকামী আকুল ভাবে অপেক্ষা করে থাকেন। কিন্তু অধিকাংশের অপেক্ষার শেষই হয় না।

 অত্রি করেরও অপেক্ষার শেষ হত না। যদি না নাট্যকার সুমিত ভট্টাচার্য্য তাঁকে সুযোগ দিতেন। তাঁর নাটক ‘ভালোবাসার বারান্দা’-র সৌজন্যে অত্রি কর বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে চলেছেন। আগামী ৩রা আগষ্ট-২০১৮ কলকাতার যোগেশ মাইম মঞ্চে। বিকাল ৫টায়।

অত্রি করেরও অপেক্ষার শেষ হত না। যদি না নাট্যকার সুমিত ভট্টাচার্য্য তাঁকে সুযোগ দিতেন। তাঁর নাটক ‘ভালোবাসার বারান্দা’-র সৌজন্যে অত্রি কর বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে চলেছেন। আগামী ৩রা আগষ্ট-২০১৮ কলকাতার যোগেশ মাইম মঞ্চে। বিকাল ৫টায়। এ প্রসঙ্গে অত্রি কর বলেন, কী ভালোই না হত মঞ্চের ঐ ঘটনা যদি রূপান্তরকামীদের জীবনেও বাস্তবায়িত হত। যাইহোক, বাস্তবায়নের কথা চিন্তা না করে মঞ্চের ভালোবাসার বারান্দাকে সুন্দর করে সাজাতেই এখন তিনি মনোসংযোগ করছেন। কেননা মঞ্চ হোক বা বাস্তব সার্থক রূপায়নের ব্যাপারে সদা সচেষ্ট তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here