মরোনত্তর ঋতুপর্ণকে অপমান করে ভারতীয় সংস্কৃতিকে অসম্মান করলেন শুভাপ্রসন্ন

0
1325

মরোনত্তর ঋতুপর্ণকে অপমান করে ভারতীয় সংস্কৃতিকে অসম্মান করলেন শুভাপ্রসন্ন

অবকাশে সঞ্জয়ঃ এ কোন্‌ শুভাপ্রসন্ন যিনি উচ্চকন্ঠে অপমান করেন ভারতীয় সংস্কৃতি কে! কেনই বা করলেন এমন অসম্মান! ব্যক্তিগত ক্রোধ? নাকি সস্তা জনপ্রিয়তা? দুটোর কোনটাই কিন্তু মানায় না ওনার মতো চিত্রশিল্পী তথা অধুনা প্রচলিত শব্দবন্ধ বুদ্ধিজীবীকে।

ভারতীয়  সংস্কৃতি হল সেই সংস্কৃতি যেখানে একজন মানুষের মৃত্যুর পর আর তাঁকে কেউ অপমান করেন না। বরং তাঁর প্রতি শ্রদ্ধাবনত হন সকলেই। তাঁর কাজের পর্যালোচনা বা সমালোচনা হয়, কিন্তু সেই ব্যক্তি মানুষটিকে কেউ অসম্মান করেন না যা করলেন অধুনা বিখ্যাত  চিত্রশিল্পী তথা বুদ্ধিজীবী শুভাপ্রসন্ন।

গত ৭ই সেপ্টেম্বর-২০১৮ তে এক বেসরকারী চ্যানেলে ( চ্যানেল হিন্দুস্তান)  প্রকাশিত হয় শুভাপ্রসন্নের পাঁচ মিনিটের এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকার। উপলক্ষ্য তার আগের দিন ৩৭৭ ধারা কে কেন্দ্র করে সুপ্রিম কোর্টের ঐতিহাসিক রায়। যাইহোক সেই সাক্ষাৎকারের শুরু থেকেই তিনি মরোনত্তর ব্যক্তি ঋতুপর্ণ ঘোষের প্রতি বেশকিছু অসম্মানজনক কথা বলতে থাকেন। যেমন তাঁর সাজপোশাককে ব্যঙ্গ করা, চিত্রাঙ্গদা চলচ্চিত্রে নায়িকা চরিত্রে অভিনয় করাকালীন বুক উঁচু করার জন্য একের পর এক ইনজেকশান নেওয়া ইত্যাদি। কিন্তু এসব ব্যঙ্গাত্মক মন্তব্যকে ছাপিয়ে যায় যখন তিনি বলে ওঠেন, ঋতুপর্ণ আমার পাশে বসলেই গা রি রি করে উঠত।

 

এই মন্তব্য শুধু ঋতুপর্ণকে অপমান করা নয়, তার পাশাপাশি অস্পৃশ্যতার ইঙ্গিত । কিন্তু বুদ্ধিজীবী শুভাপ্রসন্ন অম্লান বদনে তাই করেছেন। এমনকি তিনি এও বলেছেন এসব করে সমাজ পরিবর্তন করা যায় না। তার উদাহরণ সমাজের সকলে কি এই সমকামিতাকে গ্রহণ করেছেন? করেন নি।

এইভাবে নানা মন্তব্যের মধ্য দিয়ে ঋতুপর্ণকে অপমানের পাশাপাশি ভারতীয় সংস্কৃতিকে এবং সমকামিতাকে অসম্মান করে যে কুদৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন বিতর্কিত শিল্পী তার উত্তর ভাবীকাল দেবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here