যৌনতার নাগপাশ ছিঁড়ে ভালোবাসার রঙে রঙিন হয়ে উঠুক এই Queer Calender.

0
226
ছবি সৌজন্যে - সন্দীপ্তা ছেত্রী

যৌনতার নাগপাশ ছিঁড়ে ভালোবাসার রঙে রঙিন হয়ে উঠুক এই Queer Calender.

ছবি সৌজন্যে – সন্দীপ্তা ছেত্রী

বিশেষ প্রতিবেদনঃ সমাজের প্রতিটি স্তরে যখন যৌন হেনস্তা তার করাল গ্রাস নিয়ে ঝাপিয়ে পড়েছে, দেশ বিদেশ জুড়ে মানুষ যখন #মি_টু ক্যাম্পেনে নিজের প্রতিবাদ করে উজার করে দিতে প্রস্তুত তখন তৃতীয় লিঙ্গের মানুষরাও বা চুপ থাকে কেন? পুরুষতান্ত্রিক সমাজ যখন কাজের ভিত্তিতে নয়, যৌনতার মাপকাঠিতে মানুষের বিচার করতে শুরু করে তখন শুধু কোন ৩৭৭ এর বদল মনুশের মনকে বদলাতে পারবে না, পারবে না একজন রুপান্তরকামীকে বা একজন সমকামীকে তার যোগ্য সম্মান দিতে, তার যোগ্য অধিকার দিতে। তাই কোন আইন নয়, একমাত্র ভালোবাসা পাড়ে মনের বদল ঘটাতে , একমাত্র শিক্ষা পাড়ে মনের অন্ধকার দূর করতে। আর সেই অঙ্গীকার নিয়েই রুপান্তরকামী নৃত্য শিল্পী ও মডেল সন্দীপ্তা ছেত্রী ও আলোকচিত্রী শুভজিত নস্করের এক ক্ষুদ্র প্রয়াস Queer Calendar, যে ক্যালেন্ডার শুধুমাত্র বাড়িতে দেওয়ালে ঝুলে থাকা কতগুলি ছবি না, যে ছবি বলবে অনেক গুলো মানুষের মনের কথা, তাদের ভালোবাসার কথা। LGBTIQ সম্প্রদায়ের মানুষের মনন তুলে ধরবে এই দিনলিপি, যা প্রতিদিন একজন মানুষের চোখের সামনে থাকবে আর তাকে ভাবতে বাধ্য করবে এই মানুষগুলোর বিষয়ে। সমাজে যাদেরকে “বিশেষ”, “অভিশাপ”, “বিকৃতমনস্ক” আখ্যা দেওয়া হয় তারাও বাকি পাঁচজনের মতো মানুষ, তারাও সমানাধিকারের দাবী রাখতে পারে এই কথা ভাবতে সাহায্য করবে এই ক্যালেন্ডার। ক্যলেন্ডারের প্রতিটি মাস LGBTIQ সম্প্রদায়ের মানুষের ছবি ও তাদের মননে রঙিন হয়ে উঠবে। ক্যলেন্ডারের পরিচালক সন্দিপ্তা ছেত্রীর কথায় “ সমাজে মুলস্তরে যে হারে মহিলা বা পুরুষরা যখন মডেলিং বা অভিনয় জগতে জায়গা করে নিচ্ছে সেই পরিসরে একজন রুপান্তরকামী বা সমকামি মানুষ জায়গা পাচ্ছেন না, বা কোথাও তাদের জায়গা করে নিতে দেওয়া হচ্ছে না, তাই আমাদের এই উদ্যোগে আমরা চেষ্টা করেছি নতুন কিছু মানুষ LGBTIQ সম্প্রদায় থেকে উঠে আসুক যারা লড়াই করে চলেছে প্রতিনিয়ত মডেলিং জগতে জায়গা করার জন্য। তাদের জন্য এই ক্যলেন্ডার একটি Platform হয়ে উঠুক” । ক্যলেন্ডারের কভার ফটো ইতিমধ্যেই তৈরি হয়ে গেছে, তাতে কাজ করেছেন তমোঘ্ন তপসিদ্ধ সেন,শোমনাথ ময়রা,শশী হাজারী,রিয়া চক্রবর্ত্তী, যোগীরাজ,সন্দীপ্তা ছেত্রী,অমিত শর্মা,মনিদীপ্ত কর্মকার, শ্রুতি বণিক,নিকিতা দত্ত, প্রীতম মণ্ডল, ববী রয়, সুমন সাহা প্রমুখ। এই উদ্যোগে আর একটি লক্ষ্য করার মতো বিষয় হল ক্যালেন্ডার মূলত LGBTIQ সম্প্রদায়ের মানুষদের ভাবনা নিয়ে তৈরি হলেও তাতে সমাজের তথাকথিত Heterosexual মানুষদেরও জায়গা দিয়েছেন সন্দ্বীপ্তা ও শুভজিত। এই বিষয়ে ক্যলেন্ডারের Director Of Photography শুভজিতের কথায় মুলস্তর বা কোন সম্প্রদায় বলে কিছু হয় না, আমাদেরকে বোঝাতে হবে এই মানুষগুলো কোনোভাবেই বাকিদের থেকে আলাদা না।তাই সমাজের সর্বস্তরে সবাইকে সমানভাবে এগোতে হবে, সেই ভাবনা থেকেই কোন যৌনতার বেড়াজাল রাখা হয় নি, Heteronormitive মানুষও এই ক্যালেন্ডারে জায়গা নিয়েছে। এখন জোর কদমে সন্দিপ্তা ও শুভজিত ক্যালেন্ডারের কাজ শুরু করে দিয়েছে, বেশ কিছু ছবি তাদের তোলা হয়ে গেছে। বাকি কাজের জন্য তাদের নতুন মদেলের প্রয়োজনও। তাই তারা নতুন মডেলদের আহবানও জানাচ্ছে এগিয়ে আসার জন্য। যৌনতার নাগপাশ ছিঁড়ে ভালোবাসার রঙে রঙিন হয়ে উঠুক এই Queer Calender.     এখন দেখার এই কুইয়ার ক্যালেন্ডার মানুষের মধ্যে কতখানি সাড়া ফেলে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here