প্রথম রূপান্তরিত নারী আইনজীবী-নৃত্যশিল্পী সায়ন্তনের মুকুটে নতুন পালক সর্বজয়া সম্মান

0
98
মেঘ সায়ন্তন ঘোষের হাতে সম্মাননা তুলে দিচ্ছেন আয়োজকবৃন্দ

প্রথম রূপান্তরিত নারী আইনজীবী-নৃত্যশিল্পী সায়ন্তনের মুকুটে নতুন পালক সর্বজয়া সম্মান

মেঘ সায়ন্তন ঘোষের হাতে সম্মাননা তুলে দিচ্ছেন আয়োজকবৃন্দ

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ অনেক অবহেলা, অনেক বঞ্চনা, অনেক হাসি-ঠাট্টা, অনেক ব্যঙ্গ-বিদ্রুপ। তার বিরুদ্ধে  অনেক সংগ্রাম, অনেক লড়াই। অবশেষে নিজস্ব অধিকার, নিজস্ব সম্মান আদায়। রূপান্তরকামী সম্প্রদায়ের জীবনগাথা লিখতে গেলে প্রথমেই একথাগুলো মনে আসে। রাজ্য তথা দেশের প্রথম রূপান্তরিত নারী তথা বিখ্যাত নৃত্যশিল্পী মেঘ সায়ন্তন ঘোষের সঙ্গে কথা হচ্ছিল এ বিষয় নিয়ে। তিনিও এ বিষয়ে একমত। অবশ্য তিনি একথাও বলেন, নিজস্ব সম্মান কোথাও কোথাও পাওয়া যাচ্ছে ঠিকই, তবে তা এখনো সমাজের সর্বস্তর থেকে মেলে নি। তাই আমাদের লড়াই এখনো বাকী। এখনো অনেক পথ চলতে হবে। আর তার জন্য চাই অদম্য সাহস।

বলা বাহুল্য সেই সাহস মেঘ সায়ন্তন ঘোষের আছে। এবং সেই সাহসিকতার জন্যই তিনি পেলেন বিজয়ী সর্বজয়া সম্মান।  হেলো হেরিটেজ ও চিত্রাঙ্গদা নামক দুই সংস্থা আয়োজনে গতকাল নজরুল তীর্থ, নিউটাউনে এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাঁর হাতে এই সম্মাননা স্মারক তুলে দেওয়া হয়। প্রসঙ্গত উল্লেখ, বিখ্যাত বাচিকশিল্পী ব্রততী বন্দ্যোপাধ্যায়, সুজাতা সেন, নীলিমা ঘোষ সহ বিখ্যাত নারী ব্যক্তিত্বদেরও এই সম্মাননা প্রদান করা হয়। যাইহোক সম্মাননা প্রাপ্তি প্রসঙ্গে মেঘ সায়ন্তন ঘোষের প্রতিক্রিয়া জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, এই সম্মাননা আমাকে আগামী দিনে আরও লড়াই করতে প্রেরণা জাগাবে। যাইহোক, বিজয়ী সর্বজয়া সম্মাননা একদিকে যেমন সায়ন্তনের কাছে প্রেরণার, তেমনই এই সম্মাননা যে তাঁর মুকুটে আরও একটি পালক যোগ করল তা বলার অপেক্ষা রাখে না। অনুষ্ঠানের সার্বিক দায়িত্বে ও পরিচালনায় ছিলেন অন্যতম আয়োজক সংস্থা  হেরিটেজের কর্ণধার রেশমি চ্যাটার্জী।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here