রূপান্তরিত নারী হিসাবে নর্তকী নটরাজ দেশের প্রথম ‘পদ্মশ্রী’

0
353
ছবি সৌজন্যে -ইন্টারনেট

রূপান্তরিত নারী হিসাবে নর্তকী নটরাজ দেশের প্রথম ‘পদ্মশ্রী’

ছবি সৌজন্যে -ইন্টারনেট

বিশেষ প্রতিবেদনঃ শুরুটা হয়েছিল ২০১৪ সালে। সেবছর ১৫ ই এপ্রিল সুপ্রিমকোর্ট তার এক ঐতিহাসিক রায়ে রূপান্তরকামীদের পৃথক লিঙ্গসত্ত্বার স্বীকৃতি দিয়েছিলেন। ভারত সরকারকে নির্দেশ দিয়েছিলেন, রূপান্তরকামীদের সমস্ত রকম নাগরিক সুবিধা দিতে হবে। তারপর গতবছর সুপ্রিমকোর্টের আরও এক ঐতিহাসিক রায়। সমকামী অপরাধ নয়। এবং এবছর পাশ হয় ট্রান্সজেন্ডার প্রোটেকশান বিল( যদিও বিলটি বিতর্কিত ও সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পরিপন্থী)। তবুও সরকারী স্তরে রূপান্তরকামীদের বড়রকম স্বীকৃতি দেওয়া হচ্ছিল না। আমাদের রাজ্যে রূপান্তরিত নারীর কলেজের অধ্যক্ষ পদে নিযুক্তি, কেরালায় মেট্রোরেলের চাকরী, উড়িষ্যায় পুলিশী পদে নিয়োগ, বিহারে ব্যাঙ্ককর্মী এরকম কিছু উজ্জ্বল উদাহরণ থাকলেও পুরস্কার, সম্মাননা ইত্যাদি ক্ষেত্রে রূপান্তরকামীরা একপ্রকার ব্রাত্য।

সেই উপেক্ষার এই প্রথম অবসান হল। রূপান্তরিত নারী নর্তকী নটরাজের পদ্মশ্রী প্রাপ্তির মাধ্যমে। রূপান্তরকামী সমাজের তিনিই প্রথম নারী যিনি দেশের এই বিরল অসামরিক সম্মানে সম্মানিত হলেন। নৃত্যকলা তথা ভরতনাট্যমে তাঁর দক্ষতা প্রশ্নাতীত। বিশ্বজুড়ে নৃত্য প্রদর্শন করেছেন। আর তারই স্বীকৃতি স্বরূপ এবছর নর্তকী নটরাজ পেলেন পদ্মশ্রী। আর্ট-ডান্স ও ভরতনাট্যমে অসামান্য কৃতিত্বের জন্য তামিলনাড়ুর ৫৪ বছর বয়সী এই নৃত্যশিল্পীকে ‘পদ্মশ্রী’ সম্মানে ভূষিত করা হয়। যাইহোক তাঁর এই সম্মানপ্রাপ্তি যে সমগ্র রূপান্তরকামী সমাজের কাছে অনুপ্রেরণার তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here