এখনও নিজ অধিকার পেতে তৃতীয়লিঙ্গের মানুষদের আদালতে হত্যি দিতে হবে?

0
22
ছবি সৌজন্যে ইন্টারনেট

এখনও নিজ অধিকার পেতে তৃতীয়লিঙ্গের মানুষদের আদালতে হত্যি দিতে হবে?  

সঞ্জয় গায়েনঃ আবারও। সেই একই ঘটনা। নিজ অধিকার পেতে আদালতে হত্যি দিতে হল তৃতীয়লিঙ্গের ছাত্রীকে।এবার ঘটনাস্থল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়। যথারীতি তৃতীয়লিঙ্গের ছাত্রীকে নিজ লিঙ্গ পরিচয়ে ভর্তি নিতে অস্বীকার করা হয়।তখন সেই ছাত্রীকে বাধ্য হয়ে আদালতে যেতে হয়। এবং কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে অবশেষে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পান সেই ছাত্রী। কিন্তু কেন? ২০১৪ সাল থেকে সুপ্রিম কোর্টের স্পষ্ট রায় থাকা সত্ত্বেও কেন বারংবার আদালতে যেতে হবে নিজ অধিকার আদায়ের জন্য? এর আগে ডব্লিউবিসিএস, আইএএস পরীক্ষায় বসার জন্য আদালতে যেতে হয়েছিল পেশায় স্কুল শিক্ষিকা অত্রি করকে। এবং যথারীতি আদালতের রায়ে তিনি ওই পরীক্ষার বসার সুযোগ পান। সেই একইভাবে এবার আলিয়া সেখকে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি নিয়ে মাস্টার্স করার সুযোগ পাওয়ার জন্য আদালতে যেতে হল। যদিও আশার কথা কলকাতা হাইকোর্ট আলিয়ার পক্ষে রায় দিয়েছে।

কিন্তু প্রশ্নটা আলিয়ার জয় নিয়ে নয়। প্রশ্ন হল কেন আদালতে যেতে হবে। তৃতীয়লিঙ্গের মানুষদের লিঙ্গভিত্তিক প্রাপ্য অধিকার নিয়ে সুপ্রিম কোর্ট রায় দিয়েছে পাঁচবছর আগে। তারপরেও যদি এভাবে আদালতে যেতে হয়, তা লজ্জার।এবং সর্বোচ্চ আদালতের অবমাননা।

তবে যাই হোক, আদালতের রায়ের পর রাজ্য বা রাষ্ট্র যতই মুখ ফিরিয়ে থাকার চেষ্টা করুক অত্রি-আলিয়ারা নিজ অধিকার থেকে যে পিছু হটবে না তার প্রমাণ দিয়েছেন। ভবিষ্যতেও দেবেন। তা বলার অপেক্ষা রাখে না।  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here